মাধ্যমিক প্রতিবেদন রচনা সাজেশন class10

মাধ্যমিকে West Bengal board of secondary education বাংলা বিষয়ে নির্মিতি অংশে একটি প্রতিবেদন রচনা এবং একটি সংলাপ রচনা থাকে। তোমাদের এই দুটি অংশ থেকে বেছে নিয়ে যেকোনো একটি রচনা করতে হয়। অর্থাৎ সংলাপ রচনা এবং প্রতিবেদন রচনা এই দুটোর একটি বেছে নিয়ে লিখতে হয়। সাধারণত মাধ্যমিকে যে যে বিষয়ের উপর প্রতিবেদন রচনা আছে সেগুলি হল

  1. সাম্প্রতিক ঘটনা সম্পর্কিত বিষয় 
  2. বিদ্যালয় অনুষ্ঠান সম্পর্কিত বিষয়
  3. দুর্ঘটনা জনিত কোন বিষয় 
  4. পরিবেশ সংক্রান্ত বিষয়
  5. খেলাধুলার সংক্রান্ত বিষয় এবং 
  6. অন্যান্য

সাধারণত মাধ্যমিকে সাম্প্রতিক কোন ঘটনা বা বিষয় থেকেই প্রশ্ন এসে থাকেপ্রতিবেদন রচনা বা সংলাপ রচনায় তোমাদের 5 নম্বর থাকে তাই এই সমস্ত রচনাগুলো খুব সংক্ষেপে তোমাদের লিখতে হবে।

qbangla.com সাইটটিতে এই অংশে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ এবং ১০০% কমনযোগ্য প্রতিবেদন রচনা দেওয়া হল মোটামুটি ভাবে এই কতগুলো প্রতিবেদন রচনা ভালোভাবে প্র্যাকটিশ করতে পারলে যে কোন প্রতিবেদন রচনা তোমরা খুব সহজে লিখে ফেলতে পারবে | এখানে যে যে বিষয়ে প্রতিবেদন রচনা দেওয়া হল সেগুলি হল

  •  সাম্প্রতিক চন্দ্র অভিযানে ভারতের সাফল্য- এই বিষয়ে প্রতিবেদন রচনা কর
  • বর্তমানে ভারতের ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা বৃদ্ধি- এই বিষয়ে প্রতিবেদন রচনা কর
  •  প্রবল বৃষ্টিতে নাকাল শহরবাসী এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা কর
  • পরিবেশ দিবস উপলক্ষে তোমার বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি গ্রহণ করা হল এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা কর
  •  ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যু একশোর বেশি, আহত শতাধিক এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা কর।
  • সম্প্রতি বিদ্যালয়, পথ দুর্ঘটনা সচেতনতা অনুষ্ঠান পালিত হল এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা কর

প্রতিবেদন রচনা  

1.সাম্প্রতিক চন্দ্র অভিযানে ভারতের সাফল্য- এই বিষয়ে প্রতিবেদন রচনা কর।

|চন্দ্রযান- থ্রি অভিযানে ভারতের সাফল্য|
ধনিয়াখালি; দাদপুর; ২২ আগস্ট ২০২৩: ২০১৯ সালের চন্দ্রযান-২ সফ্ট ল্যান্ডিংয়ের ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে ২০২৩ এ চন্দ্রযান-৩ সফ্ট ল্যান্ডিংয়ে ভারতবর্ষ সাফল্যতা অর্জন করল। মূলত ভারতবর্ষই প্রথম দেশ যারা চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে চন্দ্রযান-৩ মিশন সফট ল্যান্ডিংয়ে সফল হয়েছে। এমন বিরল কৃতিতে গোটা ভারতবর্ষ খুশিতে মেতে ওঠে। চন্দ্রযান-৩ দীর্ঘ এক মাস, নয় দিনের মহাকাশের যাত্রা শেষ করে চাঁদের চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করে। ভারতের মহাকাশ গবেষণা ইসরোর এই সফলতায় ভারতের প্রধানমন্ত্রীসহ ভারতবর্ষের বিভিন্ন প্রান্তের মুখ্যমন্ত্রী শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন। ভারতবর্ষ পৃথিবীতে চতুর্থ দেশ হিসেবে এই বিরল কৃতিত্ব অর্জন করল।

   ♦ গত 14 জুলাই শ্রীহরিকোটা থেকে চন্দ্রযান৩ তার যাত্রা শুরু করে এদিন সারা ভারতবর্ষের জনগণ টিভির পর্দায় চোখ রেখেছিলেন চন্দ্রযান-৩ এর বিক্রম নামক লেন্ডারটি সফলভাবে অবতরণের পর ইসরোর বিজ্ঞানীরা আনন্দ উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠে ভারতীয় সময় সন্ধ্যা ছটা নাগাদ সফলভাবে ল্যান্ডিংয়ের পর ভারত বর্ষ স্পেস ক্লাবে এক নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করল অদূর ভবিষ্যতে ভারতীয় গবেষণা যে বিশাল এক সফলতার লাভ করল সে কথা বলাই যায়নিজস্ব প্রতিনিধি

2.  বর্তমানে ভারতের ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা বৃদ্ধি- এই বিষয়ে প্রতিবেদন রচনা কর।

| ভারতের ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা বৃদ্ধিতে চিন্তার ভাঁজ |
ধনিয়াখালি, খাজুরদহ ২৩ শে আগস্ট ২০২৩: সম্প্রতি রাষ্ট্রসঙ্ঘের এক রিপোর্টে উঠে এসেছে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। বর্তমানে ভারত বিশ্বের বৃহত্তম জনবহুল দেশ। চীনকে ছাপিয়ে ভারত জনসংখ্যা নিরিখে প্রথম স্থান অধিকার করল। এর আগে এই কৃতিত্ব ছিল চীনের। যেখানে চীনের বর্তমান জনসংখ্যা ১৪২.৫০ কোটি, সেখানে ভারতের জনসংখ্যা ১৪২.৮০ কোটি। যা সত্যি বিশেষজ্ঞদের এক চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই বিপুল পরিমাণ জনসংখ্যা বৃদ্ধিতে ভারতের অর্থনৈতিক দিক যেমন বেসামাল হবে। তেমনি খাদ্য, বাসস্থান, বেকারত্বের সংখ্যাও ক্রমবর্ধমান বৃদ্ধি পাবে। চীনের মতো একটি বৃহত্তম জনবহুল দেশ যেখানে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের সফলতা পাচ্ছে। ভারত সেখানে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে প্রতিনিয়ত ব্যর্থ হয়ে চলেছে।

     জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ না করতে পারলে ভারতবর্ষের মাথাপিছু আয় থেকে শুরু করে খাদ্য অন্ন বস্ত্রের সংস্থান এবং বেকারত্বের সমস্যা বিপদজনক হয়ে উঠবেএই বিপুল পরিমাণ জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে বিশ্বের ক্ষুধা সূচকেও ভারতের অবনতি ঘটছেএইরকম চলতে থাকলে অদূর ভবিষ্যতে ভারতের যে ব্যাপকভাবে খাদ্যের অভাব হবে তা আগাম আঁচ করা যায় তাই জনসংখ্যা বৃদ্ধিতে বিশেষজ্ঞদের চিন্তার ভাঁজ ক্রমশ বেড়েই চলেছেনিজস্ব প্রতিনিধি

3. প্রবল বৃষ্টিতে নাকাল শহরবাসী- এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা কর।

| প্রবল বৃষ্টিতে রাস্তার বেহাল দশায় শহরবাসী নাকাল |
চুঁচুড়া ; হুগলি; ২৭ শে আগস্ট ২০২৩:  হুগলির চুঁচুড়ার নিকটবর্তী ভদ্রেশ্বর ৩২ নম্বর সড়ক একটি যানজট পুর্ন রাস্তা ।দীর্ঘদিন ধরে মেরামতের অভাবে রাস্তার অবস্থা একেবারে বেহাল দশায যাত্রীরা নৃত্য সমস্যার মধ্যে পড়েন। এদিন প্রবল বৃষ্টিতে রাস্তা একেবারে যাতায়াতের অনুপযুক্ত হয়ে পড়ে। এর ফলে রাস্তায় যানজট সৃষ্টি হয়। নিত্য যাত্রীরা ভোগান্তির শিকার হয়। এক সাধারণ যাত্রীর কথায়- “দীর্ঘদিন ধরে এই রাস্তা খারাপ অবস্থায় পড়ে আছে। প্রশাসনকে জানিও কোন সুরাহা হয়নি। প্রশাসনকে জানালে তারা জানাচ্ছে যে রাস্তা মেরামত খুব তাড়াতাড়ি হবে কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না”।  এদিন বৃষ্টির জলে রাস্তা প্রায় এক হাঁটু ডুবে জলে যায়।

    ♦ বাসযাত্রীরা তারা সঠিক সময়ে নিজের গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে পারছেন নাএই দীর্ঘ রাস্তার নিকাশি ব্যবস্থাও সঠিকভাবে মেরামত করা হচ্ছে নাএমনকি রাস্তার এমন বেহাল দশার কারণে দুর্ঘটনায় মৃত্যু প্রতিনিয়ত ঘটছেঅনেক সাধারন যাত্রী এ বিষয়ে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে কিন্তু প্রশাসনের সেদিকে কোন ভ্রুক্ষেপ নেই স্থানীয় এম. এল. এর কাছে বিষয়টি জানালে তিনি জানান যে খুব শীঘ্রই ওই রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু হবেনিজস্ব প্রতিনিধি

4. পরিবেশ দিবস উপলক্ষে তোমার বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি গ্রহণ করা হল- এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা কর।

|বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করল বিদ্যালয়ে কয়েকশ ছাত্রছাত্রী|
তারকেশ্বর; হরিপাল; ২৪ আগস্ট ২০২৩: বর্তমানে একদিকে বিভিন্ন কলকারখানা পত্তনের জন্য যথেচ্ছ ভাবে গাছ নষ্ট করা হচ্ছে। অন্যদিকে হুগলির তারকেশ্বরে এক অন্যতম বিরল নজির সৃষ্টি করল। এদিন পরিবেশ দিবস উপলক্ষে তারকেশ্বরের নিকটবর্তী হরিপাল হাইস্কুলে এক বিরাট বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালিত হল সফলভাবে। এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিতে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের পাশাপাশি আশেপাশে গ্রামের সাধারণ মানুষও অংশগ্রহণ করেছিল। প্রতিটি ছাত্রছাত্রী একটি করে চারা গাছ রোপন করেছে। সেই সঙ্গে গ্রামের আশেপাশে সাধারণ মানুষ একটি করে চারা গাছ রোপন করেছে। বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে চারিদিকে এক উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়।

    ♦এলাকার পঞ্চায়েত প্রধানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল তিনি জানান বর্তমানে যেভাবে বৃক্ষচ্ছেদন করা হচ্ছে, তাতে পরিবেশের যে পরিমাণ ক্ষতি হচ্ছে, তা এই বৃক্ষরোপন কর্মসূচি খুব ভালো একটি উদ্যোগ আমি এখানে আসতে পেরে নিজেকে ধন্য বলে মনে করছি এমন একটি সুন্দর অনুষ্ঠানের আয়োজক ছিলেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মহাশয় সহ ওই বিদ্যালয়ের অন্যান্য সহ-শিক্ষক ও শিক্ষিকাগণ এই রকম কর্মসূচি পশ্চিমবঙ্গের প্রতিটি বিদ্যালয় হওয়া উচিত এই অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বক্তব্য দিয়ে শেষ করা হয়নিজস্ব প্রতিনিধি

5. ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যু একশোর বেশি, আহত শতাধিক- এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা কর।

|ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যু একশোর বেশি, আহত শতাধিক |
ডানকুনি; হুগলি;২৪ আগস্ট ২০২৩: এদিন সকালে ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে এক মর্মান্তিক ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়া বর্ধমান কর্ড লাইনের ডানকুনি শাখায়। সকাল ১০ টা নাগাদ এমন মর্মান্তিক ট্রেন দুর্ঘটনায় প্রায় একশোরও বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটেছে। আহত হয়েছে প্রায় কয়েকশো মানুষ। আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে ডানকুনির নিকটবর্তী স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে জিআরপিএফ পুলিশ হাজির হয়। ঠিক কি কারনে ট্রেন লাইনচ্যুত হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থলে আশেপাশে গ্রামবাসীরা দৌড়ে ছুটে আসেন তারা আহত ব্যক্তিদের সেখানে উদ্ধার করে তাড়াতাড়ি নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যান ।

     ♦ লোকাল থানার পুলিশও উদ্ধার কাজে সহযোগিতা করে এমন ঘটনায় গোটা পশ্চিমবঙ্গবাসীসহ সারা ভারতবর্ষ স্তম্ভিত হয়ে যায় ঘটনাস্থলে মুখ্যমন্ত্রী নিজে হাজির হন মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য মৃতদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন এবং আহতদের জন্য চিকিৎসার যাবতীয় খরচ তিনি দেবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেনএমন মর্মান্ত ট্রেন দুর্ঘটনায় বহু পরিবার তাদের আত্মীয়স্বজনকে হারালো এই গাফিলতি কার তা তদন্ত করে খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এদিন হাওড়া বর্ধমান কর্ড লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছেনিজস্ব প্রতিনিধি

6. সম্প্রতি বিদ্যালয়ে, পথ দুর্ঘটনা সচেতনতা অনুষ্ঠান পালিত হল- এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা কর।

| বিদ্যালয়ে, পথ দুর্ঘটনা সচেতনতা অনুষ্ঠান পালিত হল|
দশঘড়া; হুগলি; ২৭ আগস্ট ২০২৩: পথ দুর্ঘটনা যেন আজকাল নিত্য নৈমিত্তিক ঘটনা হয়ে উঠেছে। প্রায় প্রতিনিয়তই পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যুর খবর শোনা যায়। পথ দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে এদিন হুগলির দশঘড়া হাইস্কুলে এক পথ দুর্ঘটনা সচেতনতা অনুষ্ঠান পালন করা হলো। এই অনুষ্ঠানটি দশগরা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মহাশয়ের অনুকূল্যে অনুষ্ঠিত হয় । এই অনুষ্ঠানে অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন। এলাকার এমএলএ সহ পঞ্চায়েতের প্রধান পর্যন্ত উপস্থিত ছিলেন। স্থানীয় এম এল এর কথায়- “পথদুর্ঘটনায় বহু মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে শুধুমাত্র মানুষের সচেতনতার অভাবে প্রাণ হারাচ্ছে।

     ♦ তাই আমরা আজকে এসেছি মানুষকে অবাঞ্চিত পথ দুর্ঘটনা ঘটনা থেকে সচেতন করতেআশেপাশের বহু বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রী এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে তারাও অনুষ্ঠানে সেভ ড্রাইভ সেভ লাইফ বলে স্লোগান দেয়ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে একটি লংমার্চ করা হয়শুধু তাই নয় তাৎক্ষণিক নাটক অভিনয়ের মাধ্যমেও মানুষকে পথ দুর্ঘটনা বিষয়ে সচেতন করে তোলা হয় সাধারণ মানুষের ভিড় উপচে পড়ার মতো।                            নিজস্ব প্রতিনিধি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Read More

Recent